ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করে প্রিয়াঙ্কা চক্রবর্তী থেকে আয়েশা সিদ্দিকা হলেন জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পী

ইসলাম ধ’র্ম গ্রহণ করেছেন জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পী প্রিয়াঙ্কা চক্রবর্তী শমী। গত ৩ আগস্ট চট্টগ্রামের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের কার্যালয়ে নোটারি করে স্থানীয় আলেমের কাছে ইসলাম ধ’র্ম গ্রহণ করেন। তার নাম রাখা হয়েছে আয়েশা সিদ্দিকা। আয়েশা সিদ্দিকা (প্রিয়াঙ্কা চক্রবর্তী) হবিগঞ্জ জে’লার লাখাই থানার রাঢ়িশাল গ্রামের পূর্ণেন্দু শেখর চক্রবর্তীর মেয়ে। তার জন্ম স্থান সিলেটের ওসমানীনগর উপজে’লার দুলিয়ারবন্দ গ্রামে দীর্ঘদিন ধ’রে পিতা-মাতার সাথে বসবাস করে আসছিলেন। প্রিয়াঙ্কা তার হলফনামায় উল্লেখ করেন,
null

null

null
মুসলিম বন্ধু-বান্ধবদের সং’স্প’র্শে এসে ইসলাম ধ’র্ম সম্পর্কে জানেন ও বুঝেন। এ সময় পবিত্র কুরআন-হাদিস পড়েন এবং নবী মোহা’ম্ম’দ (সা:)’র জীবনী পড়েন। এ থেকে তিনি ইসলাম ধ’র্মের সৌন্দর্য ও আচার আচরণ দেখতে পেয়ে মুগ্ধ হন। তিনি সনাতন ধ’র্ম ত্যাগ করে ৩ আগস্ট চট্টগ্রামের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের কার্যালয়ে নোটারি করে
null

null

null

স্থানীয় আলেমের কাছে ইসলাম ধ’র্ম গ্রহণ করেন। তার নাম রাখা হয়েছে আয়েশা সিদ্দিকা। এখন তিনি এ নামে পরিচিত হবেন। নও মুসলিম আয়েশা সিদ্দিকা (প্রিয়াঙ্কা) ইসলাম ধ’র্ম গ্রহণ করার পর চট্টগ্রামের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের কার্যালয়ে নোটারি করে গত ৮ আগস্ট হবিগঞ্জ জে’লার নবীগঞ্জ উপজে’লার দীঘলবাক ইউনিয়নের কামা’রগাও গ্রামের আব্দুল মুকিতের ছেলে সাব্বির আহম’দ রনির সাথে বিবাহ বন্ধনে আব’’দ্ধ হন।
null

null

null

আমি কখনোই আল্লাহকে খোঁজার গরজ অনুভব করিনি। যখন কিছুই করার থাকত না, তখন কোনো পুরনো বই বা ভবন দেখে সময় কা’টাতাম। কখনো কল্পনাও করিনি আমি মুসলমান হব। আমি খ্রিস্টানও ‘হতে চাইনি। যেকোনো প্রাতিষ্ঠানিক ধ’র্মের প্রতিই আমা’র তীব্র বিতৃষ্ণা ছিল। প্রাচীন কোনো গ্রন্থ আমা’র জীবনযাপনের পথ-নির্দেশ করবে, তা নিয়ে ভাবিইনি। এমনকি কেউ যদি আমাকে কয়েক কোটি ডলার দিয়েও কোনো ধ’র্ম গ্রহণ করতে বলত, আমি
null

null

null

সরাসরি অস্বীকার করতাম। আমা’র প্রিয় লেখকদের অন্যতম ছিলেন বার্টান্ড রাসেল। তার মতে, ধ’র্ম হলো কুসংস্কারের চেয়ে একটু ভালো, সাধারণভাবে লোকজনের জন্য ক্ষ’তিকর, যদিও এর ইতিবাচক কিছু বি’ষয়ও আছে। তিনি বিশ্বা’স করতেন, ধ’র্ম ও ধ’র্মীয় দৃষ্টিভ’ঙ্গি জ্ঞানের পথ বন্ধ করে দেয়, ভী’তি আর নির্ভরতা বাড়িয়ে দেয়। তাছাড়া আমা’দের বিশ্বের যু’’দ্ধ, নি’র্যাতন আর দু’র্দশার জন্য অনেকাংশে দায়ী ধ’র্ম। আমা’র মনে ‘হতো, ধ’র্ম ছাড়াই তো ভালো আছি। আমি প্রমাণ করতে চাইতাম, ধ’র্ম আসলে একটা জোচ্চুরি।
null

null

null

ধ’র্মকে হেয় করতে আমি পরিকল্পিত কাজ করার কথা ভাবতাম। হ্যাঁ, সেই আমিই এখন মুসলমান। আমি ঘোষণা দিয়েই ইসলাম গ্রহণ করেছি। আর সেটা না করে উপায়ও ছিল না। আমি অনুগত হয়েছি, ইসলাম গ্রহণ করতে বাধ্য হয়েছি। মজার ব্যাপার হলো, যখন ধ’র্মাবলম্বনকারীদের সাথে বিশেষ করে মুসলমান হিসেবে পরিচয়দানকারীদের সাথে কথা বলতাম, আমি প্রায়ই লক্ষ করতাম, তারা বিশ্বা’স করার আকাক্সক্ষা পোষণ করে। তাদের ধ’র্মগ্রন্থে যতই সাংঘর্ষিক বি’ষয় থাকুক, ভুল থাকুক, তারা সবকিছু এড়িয়ে দ্বিধাহীনভাবে ধ’র্মকে আঁকড়ে ধরে। তারা জানে, তারা কী বিশ্বা’স করে।
null

null

null

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *