রাষ্ট্র ধর্ম অবশ্যই ইসলাম রাখা যাবেনা : শাহরিয়ার কবির

রাষ্ট্র ধর্ম অবশ্যই ইসলাম রাখা যাবেনা : শাহরিয়ার কবির,

বিশিষ্ট সাংবাদিক, লেখক ও গবেষক। ঘাতক ‘দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি। সংখ্যালঘু নি’র্যা’তন ,বন্ধ এবং যু’দ্ধাপরাধ বিচারের দাবিতে সোচ্চার ছিলেন দীর্ঘকাল। চীনের সঙ্গে বাংলাদেশ সরকারের সম্পর্ক উন্নয়নের ‘বি’ষয়ে নানা ঝুঁকির কথা উল্লেখ করে ‘সম্প্রতি উদ্বেগ প্রকাশ করেন। একই স’ঙ্গে ‘ভারত অকৃত্রিম বন্ধু’ উল্লেখ করে দেশটির’ সঙ্গে সম্প’র্ক অটুট রাখার অভিমত ‘ব্যক্ত করেন।
null

null

null

ভারত-চীনের সঙ্গে ‘বাংলাদেশের সম্পর্কের নানা দিক নিয়ে মুখোমুখি’ হন জাগো নিউজের। আলোচনা করেন বাংলাদেশের‘ রাজনৈতিক প্রসঙ্গেও। বলেন, ‘রাষ্ট্রক্ষমতায় ‘শেখ হাসিনা থাকলে উদ্বেগের কোনো কারণ নেই’। ‘বর্তমান আওয়ামী ‘লীগ বঙ্গবন্ধুর আদর্শ থেকে অনেক ‘দূরে সরে গেছে’ বলেও মত দেন।
null

null

null

তিন পর্বের ‘সাক্ষাৎকারের আজ থাকছে শেষটি। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন ‘সায়েম সাবু জাগো নিউজ : ভারত-চীনের স’ঙ্গে ‘বাংলাদেশের সম্পর্কের নানা দিক বিশ্লেষণ করেছেন আগের দুই পর্বে। ‘এই পরিস্থিতির মধ্যে বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ কী? ! শাহরিয়ার কবির : বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ শান্তির দিকে।
null

null

null

আমরা’ কারও সঙ্গে শত্রুতা তৈরির পক্ষে নই। বন্ধুত্ব সবার স’ঙ্গে বাংলাদেশ বিশ্ব শান্তির পক্ষে। এগুলো সবই ‘বঙ্গবন্ধুর দর্শন। ১৯৭২ সালের সংবিধান হচ্ছে বাংলাদেশের ‘জাতীর দর্পণ। কিন্তু বর্তমান আওয়ামী লীগ বঙ্গবন্ধুর আদর্শ থেকে অনেক দূরে সরে গেছে শেখ হাসিনার সরকার এবার এসে গণতন্ত্র, ধর্ম’নিরপেক্ষতা নিয়ে ব্যাখ্যা ‘দিচ্ছেন।
null

null

null

সহনীয় ধর্মনিরপেক্ষতা যাকে বলে। ধর্মকে ফেলে দেয়া যাবে না, কিন্তু রাষ্ট্র থেকে আলাদা ‘রাখতে হবে। তুরস্কের কামাল আতাতুর্ক ধর্মকে নাকচ করেছিলেন। এটি করলে আর চলবে না ধর্ম ধর্মের জায়গায়, রাষ্ট্র রাষ্ট্রের জায়গায় রাখতে হবে।জাগো নিউজ : শেখ হাসিনার সরকারের’ যে অভিযাত্রা সেখানে রাষ্ট্র ‘আর ধর্মকে আলাদা করার সুযোগ আছে?
null

null

null

শাহরির কবির: আমাদের লড়াইটা ঠিক এখানেই আমরা দেখতে পাচ্ছি আওয়ামী লীগ ক্রমশই হেফাজতের দিকে ঝুঁকছে। জামায়াতিরা ক্রমশই ’আওয়ামী লীগে অনুপ্রবেশ করছে।এটি আমাদের জন্য অবশ্যই চিন্তিত হবার মত বিষয় বলে মনে করি আমরা এ বিষয় নিয়ে লড়াই থেকে সরে আসিনি।
null

null

null

যুদ্ধাপরাধের বিচারের ‘জন্য আমাদের ৪০ বছর অপেক্ষা করতে হয়েছে। ’৭২-এর সংবিধানে ফেরার জন্য লড়াইটা ‘চালিয়ে যেতে হচ্ছে। এ লড়াইটা এক প্রজন্ম থেকে আরেক প্রজন্ম পর্যন্ত চলবে বিশিষ্ট সাংবাদিক, লেখক ও গবেষক। ঘা’তক ‘দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি। সংখ্যালঘু নি’র্যা’তন ,বন্ধ এবং যুদ্ধাপরাধ বিচারের দাবিতে সোচ্চার ছিলেন দীর্ঘকাল। চীনের সঙ্গে বাংলাদেশ সরকারের সম্পর্ক উন্নয়নের ‘বিষয়ে নানা ঝুঁকির কথা উল্লেখ করে ‘সম্প্রতি উদ্বেগ প্রকাশ করেন।
null

null

null

অবশ্যই চিন্তিত হবার মত বিষয় বলে মনে করি আমরা এ বি’ষয় নিয়ে লড়াই থেকে সরে আসিনি। যু’দ্ধাপরাধের বিচারের ‘জন্য আমাদের ৪০ বছর অপেক্ষা করতে হয়েছে। ৭২-এর সংবিধানে ফেরার জন্য লড়াইটা ‘চালিয়ে যেতে হচ্ছে। এ লড়াইটা এক প্রজন্ম থেকে আরেক প্রজন্ম পর্যন্ত চলবে।
null

null

null

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *